বাংলাদেশে বর্তমান সময়ে বেশ কয়েকটি রাজনৈতিক দল রয়েছে। এই সকল দলের মধ্য বিএনপি একটি অন্যতম দল। বহু দিন ধরে এই দল ক্ষমতার বাইরে রয়েছে। এবং নানা সংকটের মধ্য রয়েছে বিএনপি দল। দল সঠিক ভাবে পরিচালনার জন্য বিএনপি দলের নেতাকর্মীরা নানা ভাবে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। নানা ভাবে প্রতিনিয়ত বাধার সম্মুখীন হচ্ছে বিএনপি দলের নেতাকর্মীরা। দলের এমন সংকটপন্ন অবস্থায় দলের নেতাকর্মীরা সঠিক নেতৃত্বের আভাব বোধ করছে।
বিএনপি এখনও কার্যকরভাবে রাজপথে নামেনি। আমি, আবদুল্লাহ আল নোমান এবং আরও কয়েকজন আমরা রাজপথে নেমেছিলাম। আগামীদিনেও নামবো। বিএনপির নেতৃবৃন্দ যদি হুকুম নাও দেয়, তাও যারা এ সরকারের বিরুদ্ধে নামবে আমি তাদের সাথে আছি। এসব কথা বলেছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহম্মদ বীর বিক্রম। তিনি বলেছেন, মহিলাদের সাহসই, এখন আমাদের সাহস। বৃহস্পতিবার বিএনপির নয়াপল্টন কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। মেজর (অব.) হাফিজ বলেন, এ সরকার বিরোধী আন্দোলনে আমি থাকবো, এহসানুল হক মিলনও থাকবে, মাহমুদুর রহমান মান্নাও থাকবে, দুদুও থাকবে। আশা করি হেলেন জেরিন খানও থাকবে এবং মহিলা আরও নেতৃবৃন্দ যারা আছেন তারাও থাকবেন। মহিলাদের সাহসই এখন আমাদের সাহস। আমাদের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া বাংলাদেশের সবচেয়ে সাহসী ব্যক্তি। সুতরাং আমাদেরকেও একটু সাহস প্রদর্শন করতে হবে।

তিনি বলেন, যাদের প্রচুর টাকাপয়সা, ধনদৌলতের অভাবে নেই, তারা কীভাবে আন্দোলন করবে? আন্দোলন করার জন্য সৎ ব্যক্তি প্রয়োজন। আজকে নেতৃবৃন্দ যদি ব্যর্থ হয়, আমরা ব্যর্থ হই, আপনারা নামেন রাস্তায়। বিএনপির নিষ্ক্রিয়তার সমালোচনা করে তিনি বলেন, বিএনপি যদি আন্দোলন না করে, অন্যকোনো দলও যদি আন্দোলন করে আমরা সেখানে যোগ দেবো। সবাই আশা করে বিএনপি আন্দোলনে নেতৃত্ব দেবে। এত চমৎকার একটা নির্বাচনের প্রেক্ষাপট তৈরি হয়েছিল। জনতার জোয়ার ছিল। কারচুপি তারা করবে এটাতো জানাই কথা। যাদের ভোট নাই ৫ শতাংশ। কেনো আমরা আন্দোলনের প্রস্তুতি নিলাম না? কেনো নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার সাথে সাথে ঢাকার আকাশ বাতাস প্রকম্পিত হলো না। বিএনপির সাহসী কর্মীবাহিনী নিশ্চয় নামতো, আমরা নিশ্চয় নামতাম।

মেজর (অব.) হাফিজ বলেন, এ সরকার জনপ্রিয়তার তলানির চেয়ে তলানিতে নেমে গেছে। আমাদের রাজপথে নামতে হবে। প্রতিবেশী রাষ্ট্রের অন্যায়ের বিরুদ্ধে আমাদের সরকার কথা বলে না। ব্যাংক লুটের বিষয় প্রধানমন্ত্রী একটি কথাও বলেন না।

উল্লেখ্য, হাফিজ উদ্দিন আহম্মদ বাংলাদেশের একজন রাজনীতিবীদ। তিনি বিএনপি দলের সঙ্গে যুক্ত। এছাড়াও তিনি একজন বাংলাদেশের সামরিক ব্যক্তিত্ব। এবং তিনি বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে বিশেষ অবদানের জন্য ’বীর বিক্রম’ খেতাবে ভূষিত হয়েছেন। বর্তমানে তিনি বাংলাদেশের জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন।