সমগ্র পৃথিবী জুড়ে অসংখ্য দেশ রয়েছে। এই সকল দেশ গুলোর মধ্যে অনেক সৌন্দর্যপূর্ন এবং নিরাপদ অসংখ্য নগরী রয়েছে। সম্প্রতি বিশ্বের ৬০ নিরাপদ নগরীর তালিকা প্রকাশিত হয়েছে। এই তালিকায় নাম রয়েছে বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার নাম। অবশ্যে প্রকাশিত ৬০ নিরাপদ নগরীর তালিকায় ঢাকার অবস্থান ৫৪তম।
বিশ্বের নিরাপদ নগরীগুলোর তালিকায় বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার অবস্থান এখনও তলানিতেই রয়ে গেছে। দি ইকোনমিস্ট ইন্টেলিজেন্স ইউনিটের ’সেফ সিটি ইনডেক্স’-এ এবার ঢাকার স্থান হয়েছে ৬০ নগরীর মধ্যে ৫৪ নম্বরে। ইকোনমিস্ট গ্রুপের এ গবেষণা সংস্থার এই সূচকে ২০১৯ সালে ঢাকা ছিল ৫৬ নম্বরে, অর্থাৎ দুই বছরে দুই ধাপ অগ্রগতি হয়েছে। অবকাঠামো, স্বাস্থ্যসেবা, ব্যক্তিগত নিরাপত্তা, পরিবেশগত সুরক্ষা, ডিজিটাল পরিস্থিতি- এমন ৭৬টি নিয়ামকের ভিত্তিতে নম্বর দিয়ে এই তালিকার ক্রম সাজানো হয়েছে।

ঢাকার স্কোর দাঁড়িয়েছে ৪৮ দশমিক ৪। ডেনমার্কের রাজধানী তালিকায় শীর্ষে স্থান পেয়েছে ৮২ দশমিক ৪ নম্বর নিয়ে। আর তালিকার সবচেয়ে নিচে থাকা মিয়ানমারের ইয়াঙ্গুন নগরীর নম্বর ৩৯ দশমিক ৫। পরিবেশ সুরক্ষার দিক থেকে ঢাকা কিছুটা এগিয়েছে, এই নিয়ামকের ভিত্তিতে ঢাকার ক্রম ৪৭। কিন্তু ডিজিটাল নিরাপত্তার দিক থেকে পেছনে ৫৬ নম্বরে। স্বাস্থ্যসেবা, অবকাঠামো ও ব্যক্তিগত নিরাপত্তার ক্ষেত্রে ঢাকার অবস্থান যথাক্রমে ৫২, ৫৫ ও ৫৪ ক্রমতে।

দক্ষিণ এশিয়ায় ঢাকার পেছনে রয়েছে করাচি, ইয়াঙ্গুনের এক ধাপ সামনে আছে পাকিস্তানের নগরীটি। ভারতের মুম্বাইয়ের অবস্থান ৫০ নম্বরে, তার দুই ধাপ সামনে আছে দেশটির রাজধানী শহর নয়া দিল্লি। তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে কানাডার টরন্টো। সামনের সারিতে আরও রয়েছে টোকিও, সিঙ্গাপুর, ওসাকা। দি ইকোনমিস্ট ইন্টিলিজেন্স ইউনিটের চতুর্থ বার করা এ তালিকায় আগের মতোই শীর্ষ ১০ এ আছে আমস্টারডাম, মেলবোর্ন, সিডনি। এবং শহরগুলোর স্কোরের পার্থক্য সামান্য।

দি ইকোনমিস্ট ইন্টেলিজেন্স ইউনিটের ’সেফ সিটি ইনডেক্স’ চতুর্থ বারের মত বিভিন্ন জরিপের মধ্যে দিয়ে বিশ্বের নিরাপদ নগরীর তালিকা প্রকাশ করেছে সম্প্রতি। ২০১৯ সালে ঢাকা ছিল ৫৬ নম্বরে। দুই বছরে দুই ধাপ অগ্রগতি হয়েছে ঢাকার।

Sites