Strict Standards: Only variables should be assigned by reference in /home/mugdho/public_html/plugins/content/mbvopengraph/mbvopengraph.php on line 198

 

মশা তাড়ানোর দীর্ঘস্থায়ী ও স্বাস্থ্যসম্মত উপায় জেনে নিন মোটামুটি ৩+ দিন ঘরে মশা থাকবে না
কর্পূরঃ

মশা তাড়াবার একটা সহজ উপায় হল কর্পূর এর ব্যবহার, কয়েক টুকরো কর্পূর আধকাপ পানিতে ভিজিয়ে খাটের নীচে রেখে দিন। এতে নিশ্চিত ভাবে বাসায় মশার উপদ্রপ কমে যাবে।

রোদঃ

ঘরের, লেপ, তোশক, বালিস, কাপড় ইত্যাদি মাঝেমধ্যে রোদে দিতে হবে। এতে করে নানান পোকা মাকড় কম হয়।
সতর্ক করসম্পর্কযুক্ত প্রশ্ন যোগ করমন্তব্য করুনমশা তাড়ানোর কয়েকটি উপায়- কর্পূরঃ কর্পূরের ব্যাবহার মশাবিতাড়ক হিসাবে চমৎকার কাজ করে। অন্যান্য প্রাকৃতিক সমাধানের মধ্যে সবচেয়ে দীর্ঘস্থায়ী কার্যকরী উপাদান হচ্ছে কর্পূর।

খুবই বেশি।অল্প পরিমাণ কর্পূর ঘরের একটি নির্দিষ্ট স্থানে রেখে দিয়ে ঘরের দরজা জানালা বন্ধ করে দিন এবং ১৫-২০ মিনিট পর দেখুন, পুরো ঘর মশা মুক্ত হয়ে গেছে ।

তুলসিঃ প্যারাসিটোলোজি রিসার্চ জার্নালের প্রকাশিত তথ্য অনুসারে, মশার শুককীট মারতে এবং মশাকে দূরে রাখতে তীব্র ভাবে কাজ করে তুলসী। আপনার ঘরের বারান্দায় অথবা জানালার পাশে তুলসী গাছ লাগিয়ে রাখুন এবং মশা থেকে নিশ্চিন্তে থাকুন। এই গাছের মধ্যে এমন কিছু বৈশিষ্ট্য আছে মশাকে আপনার ঘররের ভিতর আসতে দিবে না ।

রসুনঃ মশা তাড়ানোর আরেকটি অন্যতম উপাদান হচ্ছে রসুন। রসুনের শক্তিশালী এবং তীব্র কটু গন্ধই আপনাকে মশার কামড় থেকে বাঁচাতে এবং আপনার ঘরকে মশা মুক্ত করতে যথেষ্ট উপকারী ভূমিকা রাখে।

কিছু রসুনের কোষ নিয়ে তা পানিতে সেদ্ধ করে নিন এবং সেই পানি পুরো ঘরে স্প্রে করে দিন যদি আপনি মশা থেকে দূরে থাকতে চান, ইচ্ছে করলে আপনি আপনার শরীরেও স্প্রে করতে পারেন যদি আপনি মশার কামড় থেকে বাঁচতে চান।taza-khobor

News Page Below Ad