বাংলাদেশের একজন রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব এবং সাবেক সেনা প্রধান ও রাষ্ট্রপতি প্রয়াত জিয়াউর রহমান। এমনকি তিনি বাংলাদেশের জাতীয়তাবাদী রাজনৈতিক দল বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা। যুক্তরাষ্ট্রের মেরিল্যান্ডের বাল্টিমোর সিটিতে তার নামে এক রাস্তা রয়েছে। তবে সম্প্রতি সেই রাস্তায় তার নামফলক অপসারন করা হয়েছে।
যুক্তরাষ্ট্রের মেরিল্যান্ডের বাল্টিমোর সিটির রাস্তা থেকে জিয়াউর রহমানের নামফলক অপসারণ করেছে বাল্টিমোরের মেয়র অফিস।
বৃহস্পতিবার (৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে নামফলকটি সরানো হয়।
জিয়াউর রহমানের নামে রাস্তার নামকরণ করায় যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ, শেখ হাসিনা মঞ্চ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, শ্রমিক লীগ, মহিলা লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, কৃষক লীগের নেতাকর্মীরা বাল্টিমোর মেয়র অফিসে প্রতিবাদ জানিয়ে ইমেইল, চিঠি ও ফোনের মাধ্যমে প্রতিবাদ জানান। পরে তারা সাক্ষাৎকার চেয়ে আবেদন করেন। এরপর বৃহস্পতিবার (৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ভার্চুয়াল মিটিংয়ের আয়োজন করে মেয়র অফিস। এ সময় মিটিংয়ে সংযুক্ত ছিলেন ড. প্রদীপ রঞ্জন কর, শামীম চৌধুরী, প্রকৌশলী মোহাম্মদ আলি সিদ্দিকী, অ্যাডভোকেট শাহ মো. বখতিয়ার, এমএ করিম, জাহাঙ্গীর মঞ্জুর চৌধুরী, জালাল উদ্দিন জলিল, টি মোল্লা, রোমানা আক্তার।

এছাড়া বাংলাদেশ থেকে যুক্ত ছিলেন সাবেক বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক, মোহাম্মদ এ আরাফাত, সিটির প্রতিনিধি ক্যাটলিনা রডরিগেজ, ডেভিড লিয়াম, শহিদুল ইসলাম প্রমুখ। বৈঠকে আওয়ামী লীগের নেতারা বলেন, ’একজন স্বৈরশাসকের নামে যুক্তরাষ্ট্রের মতো গণতান্ত্রিক দেশে কোনো স্থাপনার নাম হতে পারে না।’ পরে বাল্টিমোর সিটি কর্তৃপক্ষ আওয়ামী লীগের নেতাদের সঙ্গে একমত হয়ে জিয়াউর রহমানের নামে রাস্তার সাইন সরিয়ে ফেলার আশ্বাস দেন।

অবশ্যে দেশের রাজনৈতিক অঙ্গনে সংকীর্ন হয়ে পড়েছে বিএনপি দল। এমনকি নানা ধরনের সমস্যায় জর্জরিত। দীর্ঘ দিন ধরে এই দলটি ক্ষমতার বাইরে থাকায় এমন পরিস্তিতির সম্মুখীন হয়েছে। এছাড়াও বর্তমান সময়ে এই দলের অসংখ্য নেতাকর্মী একধিক মামলার শিকার।

Sites