বর্তমান বিশ্বে ক্রিকেট খেলার বেশ জনপ্রিয়তা রয়েছে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশ এই ক্রিকেট খেলার সঙ্গে যুক্ত। বর্তমান সময়ে পুরুষের পাশাপাশী মেয়েরাও এই খেলার সাথে যুক্ত। এমনকি তারা আর্ন্তজাতিক অঙ্গনেও এই ক্রিকেট খেলায় অংগ্রহন করে থাকেন। এবং নানা সম্মানেও ভূষিত হয়ে থাকেন। এই সম্মান নিজের সাথে সাথে দেশকে ও সম্মানিত করে।
গৌরবময় অনিশ্চয়তার খেলা ক্রিকেট। আর এই খেলার সবচেয়ে বেশি অনিশ্চয়তা থাকে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে। মারকাটারি এই ক্রিকেটে কখন কী হয়, তা বোঝা মুশকিল। আর সব দেশের আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি স্ট্যাটাস থাকায় রেকর্ডও হয় ভুরিভুরি।

এই যেমন আজ (সোমবার) সাউথ এশিয়ান গেমসে নারী ক্রিকেটের উদ্বোধনী ম্যাচেই অবিস্মরণীয় এক কীর্তি গড়ে ফেলেছেন নেপালি বোলার অঞ্জলি চাঁদ। এক ওভারে ৩ উইকেটসহ শূন্য রানে ৬ উইকেট নিয়ে বিশ্ব রেকর্ড গড়ে ফেলেছেন তিনি।

মালদ্বীপ নারী দলের বিপক্ষে এই রেকর্ড গড়েছেন অঞ্জলি। যেখানে টস জিতে আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল মালদ্বীপ। শুরুটা তেমন ভালো না হলেও ২ উইকেটে ১৫ রান করে ফেলেছিল তারা। এরপরই আক্রমণে আসেন অঞ্জলি। বোলিং করেন মাত্র ২.১ ওভার। আর এরই মাঝে একে একে সাজঘরে পাঠান মালদ্বীপের ৬ ব্যাটসম্যানকে। ইনিংসের সপ্তম ওভারে কোনো রান খরচ না করেই নেন ৩টি উইকেট।

সবমিলিয়ে শেষের ৮ উইকেট মাত্র ১ রানে হারায় মালদ্বীপ। ইনিংস শেষ অঞ্জলির বোলিং ফিগার দাঁড়ায় ২.১-০-০-৬। আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে এটিই বিশ্ব সেরা বোলিং ফিগার। এর আগে ৩ রানে ৬ উইকেট নিয়েছিলেন মালয়েশিয়ান মাস এলিসা। মালদ্বীপের পক্ষে সর্বোচ্চ ৯ রান করেন হামজা নিয়াজ। এছাড়া উইকেটরক্ষক হাফসা আব্দুল্লাহ করেন ৪ রান। বাকি সবাই আউট হন শূন্য রানে।

এ রান তাড়া করতে মাত্র ৫ বল প্রয়োজন হয় নেপালের। ইনিংসের প্রথম ওভারের পাঁচ বলেই ৩ চার মেরে দলকে জিতিয়ে দেন ওপেনার কাজল শ্রেষ্ঠা।

বিশ্বের ক্রিকেট খেলাকে নিয়ন্ত্রন করে আইসিসি। ক্রিকেট বিশ্বে এটি সর্বচ্চো নিয়ন্ত্রক সংস্থা। ক্রিকেট খেলার নিয়ম-কানুন সহ সব ধরনের নীতি নির্ধারক হিসাবে কাজ করে এই সংস্থা। পুরুষ- মহিলা দলের উভয় খেলাকে পরিচালনা করে থাকে আইসিসি। বিশ্বের বিভিন্ন দেশকে সংগঠিত করে বিশ্বকাপ খেলার ও আয়োজন করে আইসিসি।